অবশেষে গাজার আকাশে স্বস্তি, বিদ্রোহের বিজয় অবশেষে গাজার আকাশে স্বস্তি, বিদ্রোহের বিজয় – Sabuj Bangla Tv
  1. shahinit.mail@gmail.com : admin :
  2. khandakarshahin@gmail.com : সবুজ বাংলা টিভি : সবুজ বাংলা টিভি
শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪, ০৩:৪৫ অপরাহ্ন
নোটিশ-
বাংলাদেশের প্রথম অনলাইন টিভি চ্যানেল সবুজবাংলা টিভি এর জেলা/উপজেলা প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে...

অবশেষে গাজার আকাশে স্বস্তি, বিদ্রোহের বিজয়

সবুজ বাংলা টিভি
  • প্রকাশ কাল | শুক্রবার, ২১ মে, ২০২১
  • ১৬৮ পাঠক

টানা ১১ দিনের ইসরায়েলি হামলায় মৃত্যুপুরীতে পরিণত হওয়া ফিলিস্তিনের গাজা উপত্যকায় অবশেষে স্বস্তি ফিরতে শুরু করেছে। মিশরের নিঃশর্ত মধ্যস্থতায় ইসরায়েল ও গাজার নিয়ন্ত্রণকারী সশস্ত্র সংগঠন হামাসের মধ্যকার যুদ্ধবিরতি চুক্তি হয়েছে।

বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, বৃহস্পতিবার রাত ২টা থেকে (বাংলাদেশ সময় শুক্রবার ভোর ৫টা) এটি কার্যকর হয়েছে।

ইসরায়েল ও হামাস উভয়পক্ষ বলেছে, যুদ্ধবিরতি চুক্তির কোনও ধরনের লঙ্ঘন তারা সহ্য করবে না। চুক্তি লঙ্ঘন হলে শক্ত জবাব দেয়া হবে।

মিশরের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, যুদ্ধবিরতি পর্যবেক্ষণে দুই জায়গায় দুটি প্রতিনিধিদল পাঠাবে তারা।

১১ দিনের রক্তক্ষয়ী হামলা ধ্বংসস্তূপে পরিণত হওয়া গাজায় মানবিক সাহায্য পৌঁছানোর আহ্বান জানিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন।

প্রতিটা মুহূর্ত ইসরায়েলি হামলার শঙ্কা নিয়ে উৎকণ্ঠার ১১ দিন শেষে গাজাবাসীর মধ্যে আনন্দ ফিরতে শুরু করেছে। যুদ্ধবিরতির খবরে রাস্তায় নেমে আসছে মানুষ। মসজিদগুলোর মাইকে ঘোষণা করা হচ্ছে, ইসরায়েলি দখলদারিত্বের বিরুদ্ধে বিদ্রোহের বিজয় অর্জিত হয়েছে।

গাজায় ১১ দিনের ইসরায়েলি বিমান হামলায় ২৩২ জনের প্রাণহানি হয়েছে। যার মধ্যে ৬৫ শিশু রয়েছে। ইসরায়েলের দাবি, গাজায় নিহতদের মধ্যে অন্তত দেড়শো সন্ত্রাসী রয়েছে। হামাসের রকেট হামলায় ইসরায়েলে দুই শিশুসহ ১২ জন নিহত হয়েছে দাবি ইসরায়েলের।

এদিকে যুদ্ধবিরতির উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছে ফিলিস্তিন সরকার। তবে ১১ দিনব্যাপী ইসরায়েলি হামলা চলাকালে ফিলিস্তিনের প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাসের ভূমিকা ছিল অনেকটাই গুরুত্বহীন।

হামাস ফাতাহ দ্বন্দ্বে পশ্চিম তীর ও পূর্ব জেরুসালেমে ক্ষমতাসীন ফাতাহ দলের নিযুক্ত ফিলিস্তিনি প্রধানমন্ত্রী মোহাম্মদ শাতায়েহ বলেন, ‘মিসরের নেতৃত্বে আন্তর্জাতিক শক্তির যুদ্ধবিরতি চুক্তিতে সাফল্যকে আমরা স্বাগত জানাই।’

ইসরায়েল সম্প্রতি ফিলিস্তিনের জেরুজালেম আল-জাররাহ এলাকা দখলে নেয়ার চেষ্টা চালায়। এ নিয়ে ফিলিস্তিনিদের মধ্যে চাপা উত্তেজনার মধ্যেই গেল ৭ মে পবিত্র মাহে রমজানের শেষ জুমা অর্থাৎ জুমাতুল বিদায় আদায় করতে মুসল্লিরা আল-আকসা মসজিদে সমবেত হলে ইসরায়েলি বাহিনী তাদের ওপর চড়াও হয়। মসজিদে ঢুকে মুসল্লিদের লক্ষ্য করে রাবার বুলেট ও টিয়ারশেল নিক্ষেপ করে ইসরায়েলি বাহিনী।

এর দুদিন পর শবে কদরেও আল-আকসা মসজিদে ইসলায়েলি বাহিনীর সঙ্গে মুসল্লিদের সংঘর্ষ হয়। এর প্রতিবাদে গাজা সীমান্তে বিক্ষোভ শুরু হয়। এরপর গত ১০ মে থেকে গাজায় অব্যাহত বিমান হামলা চালায় ইসরায়েল।

২০১৪ সালে গাজায় ইসরায়েলিদের সঙ্গে ফিলিস্তিনিদের ৭ সপ্তাহের যুদ্ধের অর্ধযুগ পর এবারই সবচেয়ে বড় ধরনের সংঘাত দেখলো বিশ্ব।

মূলত ইসরায়েল অধিকৃত পূর্ব জেরুজালেমের শেখ জারাহ এলাকায় থেকে বেশ কয়েকটি ফিলিস্তিনি পরিবারের বাস্তুচ্যুত হওয়ার শঙ্কা থেকে এবারের সংঘাতের সূত্রপাত। এই ফিলিস্তিনি পরিবারগুলো যেখানে বসবাস করছে তার প্রকৃত মালিক ইহুদিরা, গাজায় ইহুদি বসতি স্থাপনকারীদের পক্ষের বেশ কয়েকটি সংগঠনের দাবি ছিল এমনই।

অপরদিকে ফিলিস্তিনিরা এ ঘটনাকে জেরুজালেম থেকে তাদের বাস্তুচ্যুত করার ইসরায়েলি রাষ্ট্রীয় নীতির অংশ হিসেবে দেখে আসছিল।

এ নিয়েই এপ্রিলের শেষ দিকে ফিলিস্তিনিদের বিক্ষোভ, ইসরায়েলিদের বসতি স্থাপনকারী ও পুলিশের সঙ্গে তাদের ছোটখাটো সংঘর্ষ হতে থাকে। ১০ মে থেকে যা যুদ্ধে রূপ নেয়।

আমাদের সংবাদটি শেয়ার করুন..

এ পাতার আরও খবর

Sabuj Bangla Tv © All rights reserved- 2011| Developed By

Theme Customized BY WooHostBD