ঢাকা মহানগর বিএনপি: প্রভাবশালীর হস্তক্ষেপে শীর্ষপদে পছন্দের লোক ঢাকা মহানগর বিএনপি: প্রভাবশালীর হস্তক্ষেপে শীর্ষপদে পছন্দের লোক – Sabuj Bangla Tv
  1. shahinit.mail@gmail.com : admin :
  2. khandakarshahin@gmail.com : সবুজ বাংলা টিভি : সবুজ বাংলা টিভি
শনিবার, ২২ জুন ২০২৪, ০৩:৩৭ অপরাহ্ন
নোটিশ-
বাংলাদেশের প্রথম অনলাইন টিভি চ্যানেল সবুজবাংলা টিভি এর জেলা/উপজেলা প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে...

ঢাকা মহানগর বিএনপি: প্রভাবশালীর হস্তক্ষেপে শীর্ষপদে পছন্দের লোক

সবুজ বাংলা টিভি
  • প্রকাশ কাল | শুক্রবার, ২৫ জুন, ২০২১
  • ১৫৬ পাঠক
অবশেষে আলোর মুখ দেখছে ঢাকা মহানগর বিএনপির নতুন কমিটি গঠনের ‘দীর্ঘ প্রক্রিয়া’। দলের হাইকমান্ডের সরাসরি তত্ত্বাবধানে উত্তর এবং দক্ষিণ- দুই অংশেই আহ্বায়ক কমিটির তালিকা হয়েছে। শুধু ঘোষণার অপেক্ষা। সব ঠিক থাকলে যেকোনো সময়ই নতুন কমিটি ঘোষণা হতে পারে।

দলীয় সূত্রে জানা গেছে, নবীন-প্রবীণ সমন্বয়ে তারুণ্যনির্ভর এ কমিটি গঠন করা হয়েছে। কমিটিতে মাঠের নেতাদেরই বেশি গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে।
তবে বিগত কমিটির ভেতরে এবং বাইরে থাকা অনেক প্রভাবশালীই কর্তৃত্ব হারাচ্ছেন। এর আগে নেতৃত্বের অভাবে মহানগর কমিটিকে দুই ভাগ করেও আশানুরূপ ফল পায়নি বিএনপি।
নির্বাচন কিংবা মাঠের আন্দোলন- সবক্ষেত্রেই সক্ষমতা প্রমাণে ব্যর্থ হয়েছেন দায়িত্বপ্রাপ্তরা। এখন অতীতের ব্যর্থতা ঢেকে ঢাকা থেকেই ঘুরে দাঁড়াতে চায় প্রায় এক যুগ ক্ষমতার বাইরে থাকা দলটি। এজন্য তারুণ্যনির্ভর ঢাকা মহানগর কমিটি চান হাইকমান্ড। সাংগঠনিক দিকসহ সব কিছু বিবেচনা করে সাবেক জনপ্রিয় ছাত্রনেতা ও তরুণ নেতৃত্বের হাতে ঢাকা মহানগর বিএনপির দায়িত্ব তুলে দেওয়ার চেষ্টা চলছে। কেউ কেউ দাবি জানিয়েছেন, মহানগর রাজনীতিতে সক্রিয়দের দিয়েই নতুন কমিটি গঠনের।
জানা গেছে, ঢাকা মহানগর উত্তরে আহ্বায়ক পদে বিএনপির প্রচার সম্পাদক ও সাবেক ছাত্রদল সভাপতি শহীদউদ্দিন চৌধুরী এ্যানীকে ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক এবং আমিনুল হককে সদস্য সচিব করে ৫১ সদস্যবিশিষ্ট নতুন কমিটির প্রস্তাব করা হয়েছে। এদিকে এ কমিটিতে বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আবদুস সালাম, মহানগর বিএনপি নেতা বজলুল বাসিত আঞ্জুসহ অনেকেরই জায়গা হয়নি।
এছাড়া উত্তরের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আবদুল আলীম নকিকে সুপার ফাইভে রাখা হতে পারে। শীর্ষপদে আলোচনায় থাকা উত্তর সিটিতে দুবার মেয়র পদে নির্বাচন করা তাবিথ আউয়ালও কমিটিতে থাকছেন না। এদিকে ঢাকা মহানগর দক্ষিণের বর্তমান সভাপতি ও বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব হাবীব উন নবী খান সোহেলকে আহ্বায়ক এবং ফেনী-১ আসন থেকে গত নির্বাচনে অংশ নেওয়া যুবদল নেতা রফিকুল আলম মজনুকে সদস্য সচিব করে ৫১ সদস্যবিশিষ্ট কমিটি প্রস্তাব করা হয়েছে।
আলোচনায় থাকা নব্বইয়ের গণআন্দোলনের নেতা, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ও কেরানীগঞ্জের সাবেক সংসদ সদস্য আমানউল্লাহ আমান কমিটিতে আসতে পারছেন না।
সূত্র জানায়, দলের এক প্রভাবশালী নেতার হস্তক্ষেপেই শীর্ষপদে তার পছন্দমতো নেতাদের বসানো হচ্ছে। ফলে শীর্ষ দুই পদের একটিতে আলোচনায় সাবেক ছাত্রনেতা ও ঢাকা মহানগর দক্ষিণের নেতা হাবীবুর রশিদ হাবীব এবং ঢাকা দক্ষিণের মেয়র পদে নির্বাচন করা ইঞ্জিনিয়ার ইশরাক হোসেনও আসতে পারছেন না। চূড়ান্ত ঘোষণার আগেই এসব তথ্য ‘ফাঁস’ হওয়ায় কমিটি ঘোষণায় কিছুটা বিলম্ব হচ্ছে।
মহানগর বিএনপিকে দুই ভাগ করে সর্বশেষ কমিটি গঠন করা হয় ২০১৭ সালের ১৮ এপ্রিল। দলের যুগ্ম মহাসচিব হাবিব-উন-নবী খান সোহেলকে দক্ষিণের সভাপতি, কাজী আবুল বাশারকে সাধারণ সম্পাদক করে ৭০ সদস্যের আংশিক এবং উত্তরে এমএ কাইয়ুমকে সভাপতি, আহসান উল্লাহ হাসানকে সাধারণ সম্পাদক করে ৬৬ সদস্যের আংশিক কমিটি ঘোষণা করা হয়।
গঠনতন্ত্র অনুযায়ী দুই বছর পার হওয়ায় অনেক আগেই কমিটির মেয়াদ শেষ হয়েছে। ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণ বিএনপির আংশিক কমিটি ঘোষণার সময়ই তা পূর্ণাঙ্গ করার জন্য কেন্দ্র থেকে এক মাসের সময়সীমা নির্ধারণ করে দেওয়া হয়। কিন্তু মেয়াদ শেষে সেটিও সম্ভব হয়নি।
বর্তমান কমিটি ভেঙে নতুন নেতৃত্বে কমিটি গঠনের বিষয়ে সম্প্রতি দলের স্থায়ী কমিটির বৈঠকে আলোচনা হয়। বৈঠকের পরই বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এক আলোচনায় অংশ নিয়ে বলেন, ‘উত্তর মহানগরকে আমি অনুরোধ করতে চাই, শুধু পদ-পদবির জন্য দৌড়াবেন না। আবার কমিটি হয়ে গেলে হারিয়ে যাবেন না।’
জানতে চাইলে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির সভাপতি হাবীব-উন-নবী খান সোহেল বলেন, ‘কমিটি গঠন প্রক্রিয়া নিয়ে আমি কিছু জানি না। এটা দলের ঊর্ধ্বতন নেতারা জানেন।’
এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘কমিটি মেয়াদোত্তীর্ণ হয়েছে এটা ঠিক। তবে দীর্ঘদিন হয়েছে এটা বলা যাবে না। এর মধ্যে নানা কর্মকাণ্ড গেছে। ফলে কমিটি পুনঃগঠন দলের শীর্ষনেতারা যেটা ভালো মনে করবেন, সেটা হবে।’
ঢাকা মহানগর দক্ষিণের যুগ্ম সম্পাদক শেখ রবিউল আলম রবি বলেন, ‘কমিটি গঠন নিয়ে আলোচনা চলছে শুনেছি। যোগ্য নেতৃত্ব বাছাই করা সময়ের দাবি। এটি বিবেচনায় নিয়ে নিশ্চয়ই হাইকমান্ড কাজ করছেন।’
তিনি আরও বলেন, ‘মহানগর যেহেতু আন্দোলন-সংগ্রামের প্রাণ- সেটা মাথায় নিয়েই নেতৃত্ব বাছাই করতে হবে। সরকারের অত্যাচারে দেশের মানুষ অতিষ্ঠ। তাই বিভিন্ন শ্রেণিপেশার মানুষকে নিয়ে কমিটি গঠন করা হলে গতিশীল নেতৃত্ব আসবে। গণআন্দোলন সৃষ্টি করতে হলে গণমানুষের অংশগ্রহণ নিশ্চিত করতে হবে।
ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপির ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আবদুল আলীম নকী বলেন, ‘কমিটি পুনর্গঠন একটি চলমান প্রক্রিয়া। দলের নীতিনির্ধারণী ফোরাম আছে, তারা ঠিক করবে কারা নেতৃত্বে আসবে। কারা থাকবে কি থাকবে না। আমাদের দাবি, যারা মহানগরের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত তাদের দিয়েই যেন নতুন কমিটি গঠন করা হয়।

আমাদের সংবাদটি শেয়ার করুন..

এ পাতার আরও খবর

Sabuj Bangla Tv © All rights reserved- 2011| Developed By

Theme Customized BY WooHostBD