পঞ্চগড়ে পুলিশ পাহারায় সাত মুসল্লির ঈদের জামাত আদায় পঞ্চগড়ে পুলিশ পাহারায় সাত মুসল্লির ঈদের জামাত আদায় – Sabuj Bangla Tv
  1. shahinit.mail@gmail.com : admin :
  2. khandakarshahin@gmail.com : সবুজ বাংলা টিভি : সবুজ বাংলা টিভি
রবিবার, ২৫ জুলাই ২০২১, ০৩:০৬ পূর্বাহ্ন

পঞ্চগড়ে পুলিশ পাহারায় সাত মুসল্লির ঈদের জামাত আদায়

সবুজ বাংলা টিভি
  • প্রকাশ কাল | বুধবার, ২১ জুলাই, ২০২১
  • ১১ পাঠক
সৌদি আরবের সাথে মিল রেখে পঞ্চগড়ে এক মসজিদে ঈদের জামাত উদযাপিত হয়েছে। এ সময় উত্তপ্ত পরিস্থিতি বিরাজ করায় পুলিশ পাহারায় ৪ পরিবারের ৭ জন মুসল্লী ঈদের জামাত আদায় করেছেন।

ঘটনাটি পঞ্চগড় সদর উপজেলার হাফিজাবাদ ইউনিয়নের উত্তর কামারপাড়া জামে মসজিদের। মঙ্গলবার সকালে ওই ৪ পরিবারের সদস্য মসজিদে ঈদুল আজহার নামাজ আদায়ের প্রস্তুতি নেয়। একদিন আগে ঈদের জামাত আদায়কে কেন্দ্র করে ওই মসজিদের অধিকাংশ মুসল্লি বিরোধিতা করেন। এ নিয়ে উভয় পক্ষের মধ্যে উত্তপ্ত পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করে। পরে পুলিশ পাহারায় ঈদের জামাত আদায় করে ৭ জন মুসল্লী।

উত্তর কামারপাড়া জামে মসজিদের সাধারণ সম্পাদক আজিজুল ইসলাম, মসজিদের সহ-সভাপতি আব্দুল কাদের জানিয়েছেন, গত রমজান ঈদেও ওই ৪/৫টি পরিবারের সদস্যরা মহিলাদের নিয়ে মসজিদে একদিন আগে ঈদের নামাজ আদায় করেছিলো। এর পর আমরা মসজিদের ৬৮টি পরিবারের মুসল্লিরা বসে সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম মহিলাদের নিয়ে তাদের মসজিদে নামাজ আদায় করতে দেওয়া হবে না। এবারও তারা মহিলাদের নিয়ে নামাজ আদায় করতে চেয়েছিলো। মুসল্লিদের বাঁধায় শুধু ৬/৭ জন মুসল্লি মসজিদে নামাজ আদায় করেছে।

মসজিদের সভাপতি আব্দুল্লাহ জানিয়েছেন, কোরআনে নারী পুরুষ সবার জন্য হুকুম সমান এ কারণে গত রমজান ঈদে আমরা মসজিদে ঈদের নামাজ আদায় করেছি। এবারও প্রায় ৪০ পরিবারের পুরুষ ও মহিলারা নামাজ আদায়ের জন্য জড়ো হয়েছিলো। কিন্তু মসজিদের একদল  মুসল্লি আমাদের মসজিদে নামাজ আদায়ে বাঁধা দেয়। পরে পুলিশি পাহারায় আমরা কয়েকজন ঈদের নামাজ আদায় করেছি।

পঞ্চগড় সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল্ লতিফ মিয়া পিপিএম জানিয়েছেন, সকালে সৌদি আরবের সাথে মিল রেখে নামাজ আদায় করতে গেলে এ সময় ওই মসজিদের ৬৮ পরিবারের সদস্যরা তাদের বাঁধা প্রদান করে। এ নিয়ে উভয় পক্ষের মধ্যে উত্তপ্ত পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়। পরে পুলিশের একটি দল ঘটনাস্থলে গিয়ে উভয়পক্ষকে শান্ত করেন। পরে পুলিশের পাহারায় তাদের ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয়। সকাল ১০টায় এ জামাত পড়েছেন ইমাম মনির হোসেন।

জানা গেছে, ওই মসজিদের অধিনে ৭২টি পরিবার বসবাস করেন। এর মধ্যে ৪টি পরিবার একদিন আগে নামাজ আদায়ের পক্ষে এবং ৬৮ পরিবার একদিন আগে ঈদের জামাত আদায়ের বিপক্ষে অবস্থান নিয়েছিলো। যা কারণে পরবর্তীতে উত্তপ্ত পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়।

আমাদের সংবাদটি শেয়ার করুন..

এ পাতার আরও খবর

Categories

Sabuj Bangla Tv © All rights reserved- 2011| Developed By

Theme Customized BY WooHostBD